পড়শি যদি আমায় ছুঁতো যম যাতনা সকল যেত দূরে: লালন সাঁই

পড়শি যদি আমায় ছুঁতো যম যাতনা সকল যেত দূরে: লালন সাঁই

hhhhhhhhhhhhhh

অন্যান্য পোস্ট

তিনটি অণুগল্প

এই সময় নিয়ে ৩ টি অণু গল্প লিখলেন ব্রতী মুখোপাধ্যায়।

করোনা ও ব্যক্তি-লুট

করোনা সংস্কৃতিতে ব্যক্তি একা ও নিঃসঙ্গ হয়ে গেছে বলেই কোম্পানি-দৈত্যরা তাদের তীব্র রূপ ধারণ করতে পেরেছে। শুধু স্বাস্থ্য পরিষেবার দিক তাকালে দেখা যাবে কলকাতা শহরে বাইপাসের ধারে যে হসপিটাল সমূহ এত দিন বিত্তবানদের সুচিকিৎসার পাশাপাশি বিল-ছলনাতেও তৎপর ছিল, তারা এখন নতুন করে শুরু করেছে করোনা-টেস্ট, আচ্ছাদনী ও পিপিই কিটের ব্যবসা।

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরঃ বোধে - অনুভবে

দুঃখের বিষয় দিন দিন ওই ছাত্র ভাণ্ডারের মতো আমরাও রবীন্দ্রনাথকে সন্ন্যাসী দরবেশ বানিয়ে ফেলছি। শুধু ২৫ শে বৈশাখ এলেই তাঁকে আমাদের মনে পড়ে। ‘কবিপ্রণাম’ করেই দায় সারি। তাঁর মানবতা বোধে দীক্ষিত হই না।

EIA ড্রাফ্‌ট নোটিফিকেশন ২০২০ঃ পরিবেশ সংরক্ষণ নয়, লক্ষ্য কর্পোরেট স্বার্থপূরণ !

পরিবেশ সম্পর্কিত নীতি নির্ধারণের ক্ষেত্রে ইনক্লুসিভ মডেলের প্রয়োজন, পরিবেশ সংরক্ষণ ও ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা পালন করা আদিবাসী জনগোষ্ঠী, বনবাসী, কৃষক, মৎসজীবি, মহিলা সহ সমস্ত প্রান্তিক মানুষেরা যেখানে গুরুত্ব পাবেন। অথচ বাস্তবে বারবার 'উন্নয়নের' নামে এদেরকেই জল জঙ্গল জমি থেকে উৎখাত করা হয়ে চলেছে।

নিয়মিত কলাম

লকডাউনের খাওয়া দাওয়া

এদানি সরকার বাহাদুরের ভারী মায়া দয়া হয়েচে। দেশ সুদ্ধ তালা ঝুলিয়েচেন, ছোটলোকে খেতে পাচ্চে না এ কতা যতক্ষণ নিন্দুকে বলেচেন ততক্ষণ কানে তোলেননি। কদিন হল বড়বাবু স্বপ্নাদেশ পেয়েচেন যে যে পথে আটকে পড়েচে সকলকে নিজ নিজ বাটীতে পৌঁচে না দিলে অমরাবতীর প্যাটেলের স্ট্যাচুতে চিড় দ্যাকা দেবে। তাই হেঁকে বল্লেন, এই, এদের সব যে যেকানে যাবে পাঠিয়ে দাও।

হোমরা চোমরার ফ্যাসাদ

এডিটর বা প্রেসিডেন্ট যা- ই- হোন, এ মরসুমে ফ্যাসাদে আপনি পড়বেনই। হুতোম প্যাঁচার নকশা।

আখ্যান

করোনা মুক্ত পৃথিবী--- মানুষের পৃথিবী?

তেলেঙ্গানাতে এক ৮০ বছরের বয়স্ক মহিলাকে তাঁর বাড়িতে ঢুকতে দেওয়া হয়নি, যদি তিনি করোনার বাহক হন, এই ভয়ে। এই বাংলার এক পরিযায়ী শ্রমিক জলপাইগুড়িতে ফিরেছিলেন কেরালা থেকে। সরকারী নিয়মের মান্যতা দিয়ে তাঁর স্ত্রী তাঁকে বাড়ির রান্নাঘরে থাকতে দেন। একদিন পর তাঁকে খাবার দিতে গিয়ে দেখা যায় যে তিনি আত্মহত্যা করেছেন। ‘ মনে রাখবেন আমাদের রোগের সঙ্গে লড়তে হবে, রুগীর সঙ্গে নয়’ এটা প্রতিদিন হয়তো আমরা বহুবার শুনছি, কিন্তু আদপে কি করছি সেটা মনে করার কি সময় এখনও হয়নি?

সাত রকমের শত্তুর

দেশের হাল মোটে ভাল নয়। তাই হুতোম এ যাত্রা দেশের শত্তুরদের সমন্দে সকলকে সাবধান করে দেবেন ঠিক কল্লেন। এনাদের দেকলেই সরকার বাহাদুর চটে লাল হন। বাবু বিবিরো তফাতে থাকবেন।

পরিযায়ী শ্রমিকদের ভবিতব‍্য কি?

শেষ ভাল যার সব ভাল।অথচ সেই সেসের টাকাই খরচ না করে জমিয়ে সরকার মাসে মাসে সুদ খাচ্ছেন।সেখানে পরিযায়ী শ্রমিকদের ভবিতব‍্য ভাল না হওয়াই স্বাভাবিক।

পরিযায়ী স্বপ্ন ও স্বপ্নভঙ্গ

অতিমারির অছিলায় সরকারি-অসরকারি কর্মকর্তাদের যে অতি-আচার নামিয়ে আনা হ’ল ওদের জীবনে, তার কি কোনো প্রয়োজন ছিল? এপ্রশ্নের উত্তর মিলবে না, ওরা জেনে গেছে। আর এখান থেকে ওরা ভয় পায় নিজেদের ভবিষ্যৎ নিয়ে। লকডাউনের জের কতদিন চলবে, জানা নেই। ওদের পুরনো কাজের জায়গায় ফিরে যাওয়া কি সহজ হবে? লকডাউনের জেরে ব্যবসাপত্র সবকিছুতে মন্দা নেমে এসেছে। সরকার টাকা ঢালবে না পরিযায়ী শ্রমিকদের কথা

রেল যখন কম

'অনুগ্রহ করে শুনবেন। তিন নম্বর প্ল্যাটফর্ম দিয়ে থ্রু ট্রেন যাবে। দয়া করে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখুন।' দীর্ঘদিন হয়ে গেছে এ ঘোষণা শোনা যায়নি। তিন মাস ধরে লোকাল ট্রেন বন্ধ, ভারতীয় রেলের ইতিহাসে এই প্রথম।

শাহিনবাগের আজ ও কাল

এখন নতুন করে সিএএ ও এনআরসি বিরোধী আন্দোলনের সামনে হুমকি নামিয়ে আনতে তৎপর দেশের শাসক। লকডাউনের সুযোগে একের পর এক আন্দোলনের প্রথম সারির কর্মীদের গ্রেপ্তার করেছে। তখন শাহিনবাগের চেতনাকে ধরে রাখতে হবে প্রতিবাদের রূপকল্পে। শাহিনবাগের চেতনাকে বাঁচিয়ে রাখা বেশি করে প্রয়োজন মুসলমান সমাজের প্রগতিকল্পে।