পড়শি যদি আমায় ছুঁতো যম যাতনা সকল যেত দূরে: লালন সাঁই

পড়শি যদি আমায় ছুঁতো যম যাতনা সকল যেত দূরে: লালন সাঁই

hhhhhhhhhhhhhh

বেকারত্ব কুড়ে খাবার এক পূর্বাভাস ঝড়ের মত বয়ে আসছে। তাই আগামী দিনে যে, নতুন নিয়োগের দরজা পুরোপুরি বন্ধ হতে চলেছে,তা নিশ্চিত।ফলে লাফিয়ে বাড়বে স্কুলছুটের সংখ‍্যা।পড়াশুনো বন্ধ করে দেবে এক বিরাট ছাত্রসমাজ।তাই "লেখাপড়া করে যে গাড়িঘোড়া চড়ে সে" বলেও শিশুমনকে পড়াশুনোয় উৎসাহিত করা যাবেনা আর।হয়তো সবশুনে শিশুরাও বলবে,কি হবে লেখাপড়া করে?কাজই তো নেই।এতদিন জীবনে নিজের পায়ে দাঁড়ানো বলতে তারা যা বুঝতো,সময় তাদের শেখাল এই কথা কতটা অর্থহীন।

Read more


আজ ব্যাপার বদলেছে , বাংলায় এখন চাষ এর খরচ বেশি , উৎপাদনের থেকে উদ্বৃত্ত এতটাই কম যে প্রচুর পরিমানে উৎপাদন না হলে উদ্বৃত্ত ঘরে তোলার মতো হবে না। অর্থাৎ উৎপাদনের লভ্যাংশ বিদেশি কীটনাশক, এবং সার কোম্পানির কাছে চলে যায় আর খুব বড় চাষি না হলে টিকে থাকা যাবে না , তাই যা পাঞ্জাবে বা পশ্চিম উত্তরপ্রদেশে সম্ভব তা এখানে নয় , কারণ জমির ঊর্ধ্বসীমা আছে।

Read more

by সৌমিত্র বসু | 18 February, 2022 | 720 | Tags : Unemployment Agriculture


আমাদের দেশে পরিষেবা দেওয়ার জন্য এমবিবিএস ডাক্তারদের জন্য আরও নিয়মিত পদ তৈরি করা আমাদের প্রথম এবং প্রধান দাবি হওয়া উচিত নয় কি? আমরা চিকিৎসকদের অভাবের কথা বলে চিৎকার করি কিন্তু আমাদেরই সম্প্রদায়ের কাছে ডাক্তার হিসাবে তাদের জন্যে একটি স্থিতিশীল ক্যারিয়ারের বিকল্প সরবরাহ করতে ঘৃণা করি না কি?

Read more


আমি, শান্তনু দা এবং ইমতিয়াজ একমাত্র কলকাতা থেকে এসেছি এবং যাকেই আমরা বোঝানোর চেষ্টা করেছি যে আমরা বিশেষভাবে এতদূর এসেছি এই যাত্রায় অংশগ্রহণ করতে, বিস্ময়ে তাদের চোখ প্রশস্ত হয়ে গেছে। কর্ণাটকের কিছু সহযাত্রী যাদের সাথে আমি স্লোগান দেওয়ার সুযোগ পেয়েছিলাম তারা আমাকে ‘ম্যাডাম বাঙালি’ বলে সম্বোধন করছিলেন। মৌখিকভাবে আমরা একে অপরকে বুঝতে পারিনি ভাষাগত কারণে এবং বেশিরভাগ সময় সাংকেতিক ভাষায় যোগাযোগ করতাম কিন্তু যখন শ্লোগানের কথা আসে তখন আমরা সবাই জানতাম কেন আমরা এখানে ছিলাম। ‘জোড়ো জোড়ো’ ‘ভারত জোড়ো’ বা ‘জোডিসি জোডিসি’ ‘ভারত জোডিসি’ ই আমাদের যোগাযোগের মাধ্যম হয়ে উঠেছে যখনই আমরা দৌড়ের সময় যাদের কাছেই এসেছি তার সাথে ।

Read more


স্লোগান গর্জনে পরিণত হচ্ছে। হাজার হাজার মানুষ আনন্দের সঙ্গে হেঁটে চলেছে, স্লোগানে গলা মিলাচ্ছে। এ এক অনন্য অভিজ্ঞতা। এই পদযাত্রায় হাঁটতে হাঁটতে তীব্র একটা অনুভূতি যেন হৃদয় ছুঁয়ে যায়।

Read more


"একজন চমৎকার লোক, কিন্তু ভারতীয় রাজনীতির জন্য উপযুক্ত নয়", কয়েক মাস আগে পর্যন্ত তার সম্পর্কে আমার এটাই ধারণা ছিল। এবং তারপরে রাহুল ভারত জোড়ো যাত্রা-র ব্যানারে ভারতকে ঐক্যবদ্ধ করার ভাবনা নিয়ে কন্যাকুমারী থেকে কাশ্মীর পর্যন্ত ৩৫০০ কিলোমিটার পদযাত্রা শুরু করেন। একজন রাজপুত্র কি ৩৫০০ কিমি হাঁটেন, তাও এমন ধারাবাহিক ভাবে ? রাহুল গান্ধীর সঙ্গে ভারত জোড়ো পদযাত্রায় হেঁটে এসে লিখলেন দর্শন মন্দকর ।

Read more


ভারতের মত দেশের অর্থনীতি ও রাজনীতির ক্ষেত্রে সবচেয়ে সংবেদনশীল বিষয় কর্মসংস্থান। প্রতিবছর তাই কর্মসংস্থানের প্রশ্নে ভারতীয় রাজনীতিবিদরা একের পর এক প্রতিশ্রুতি দেন যা কখনো বাস্তবায়িত হয় না।২০১৪ পরবর্তী সময়ে এই প্রতিশ্রুতির পরিমাণ যেমন বেড়েছে ( প্রতিবছর ২-৩ কোটি) তেমনি পাল্লা দিয়ে বেড়েছে বেকারি।একথা ইতিপূর্বে বহু আলোচিত যে নরেন্দ্র মোদির আমলে বিগত পঁয়তাল্লিশ বছরের যাবতীয় রেকর্ডকে ভেঙে দিয়ে বেকারি শিখর ছুঁয়েছে। সেই আচ্ছে দিনের গল্প, সেই আচ্ছে দিনের শবযাত্রার কাহিনী থাকলো।

Read more