পড়শি যদি আমায় ছুঁতো যম যাতনা সকল যেত দূরে: লালন সাঁই

পড়শি যদি আমায় ছুঁতো যম যাতনা সকল যেত দূরে: লালন সাঁই

hhhhhhhhhhhhhh

‘বেটি বাঁচাও’ বা ‘ভারত মাতা কি জয়’ মার্কা স্লোগানগুলিকে কোনও রাজনৈতিক দলই প্রশ্ন করে না। নারী কেবল কারোর ‘বেটি’ বা কারোর ‘মা’, এর বাইরে তার নিজস্ব পরিচয় থাকতে পারে না। যে নারী নিজের জীবন নিজের মতো করে গড়ে তুলতে চায়, নারী-বিদ্বেষী এই সমাজ তাকে পিষে মারতে চায়। নারীর হাসি সদাই সুউচ্চ কন্ঠে, তাদের দুঃখ কোনও দুঃখই নয়, তাদের উদ্বেগ, কামনা, আশা, আকাঙ্ক্ষা, অনুভূতি, পোষাক, ভালবাসা সব তুচ্ছ, সব কিছুই ফুঁৎকারে উড়িয়ে দেওয়া হয়। এই আবহে একজন তরুণী তার ছোটো ছোটো স্বপ্নের স্বপ্নও দেখতে পারে না।

Read more

by সুমিত | 22 September, 2020 | 890 | Tags : Rhea Chakraborty Manuvaad Media


আতঙ্ক একটা মানসিক অসুখের মতো। তার উপর সেটা যদি রাষ্ট্র অনুমোদিত এবং/অথবা প্রণোদিত আতঙ্ক হয়, তাহলে তো আর কথাই নেই। ভারতের মতো পিছিয়ে পড়া অশিক্ষিত-গরিষ্ঠ কুসংস্কারগ্রস্ত ধর্মীয় উন্মাদনা কবলস্থ নিম্নচেতন জনসাধারণের অধিকাংশের মধ্যে আতঙ্ক নামক মনোপীড়া ছড়িয়ে দেবার সুযোগ এবং ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা বিপুল। প্রশ্ন শুধু একটাই। সেই আতঙ্কের চাষ কীভাবে হবে। হেতুবাদ মেনে নিয়েই কারণের তুলনায় পরিণামের উপর বেশি জোর দিতে হবে। বলার সময় যেন চোখে এবং মুখে সিজারের আত্মা এসে ভর করে। আর পাশাপাশি যে আতঙ্কিত হচ্ছে না, তাকে তাল ঠুকে বেয়ারা, অতিবিজ্ঞানী, সবজান্তা, অতিবিপ্লবী, ইত্যাদি বলে গাল ঠুকতে হবে। সমস্ত প্রক্রিয়ার মধ্যে যাতে যুক্তিতর্ক সিঞ্চিত আলাপনের জায়গা একেবারে না থাকে। কাল্পনিক ও অমূলক একটা উদাহরণ দিয়ে এরকম বৃহদায়তন গণ-আতঙ্ক উৎপাদনের বিষয়টা বোঝানো যাক। পাঠকদের প্রতি অনুরোধ, এটি জুল ভার্ন ঘরানার কল্প রচনা হিসাবেই পড়বেন।

Read more